NEWS UPDATE

দীর্ঘ অবসানের পর রাজ্যের বনদপ্তরে কর্মী নিয়োগ , ২২৬ টি শূন্য পদে

দীর্ঘ অবসানের পর রাজ্যের বনদপ্তরের কর্মী নিয়োগ , ২২৬ টি শূন্য পদে

দীর্ঘ অবসানের পর রাজ্যের বনদপ্তরে কর্মী নিয়োগ , ২২৬ টি শূন্য পদে
 রাজ্যের বনদপ্তরে কর্মী নিয়োগ , ২২৬ টি শূন্য পদে

Sarkari Chakri

নমস্কার বন্ধুরা :-

01/09: পশ্চিমবঙ্গের জলপাইগুড়ি জেলার তিনটি জাতীয় উদ্যান গরুমারা, জলদাপাড়া এবং বক্সা অরন্যতে হাতিদের দেখভালের জন্য মাহুত এবং পাতাওয়ালাদের স্থায়ী পদে কর্মী নিয়োগ করা হবে বলে জানা গেছে। এই বনদপ্তরে শেষ নিয়োগ হয়েছিল ১৯৯৭ সালে অর্থাৎ প্রায় ২৬ বছর আগে। এবার নতুন করে বিজ্ঞপ্তি জারি করল রাজ্যের বনদপ্তর।

02/09: এই তিনটি জাতীয় উদ্যান এ ১০০ টিরও বেশি হাতি রয়েছে, এই হাতিদের দেখভালের জন্য মোট ২২৬ টি শূন্য পদে মাহুত এবং পাতাওয়ালা পদে কর্মী নিয়োগ করা হবে বলে জানা গেছে।

03/09: এর আগে যে সমস্ত মাহুতরা হাতিদের দেখভাল করতো তাদের বেতন বৃদ্ধি না করার কারণে একসঙ্গে কাজ বন্ধ করে দেয় সকল কর্মীরা। ফলে এই গরমে হাতিদের দেখভাল করাটাও খুব সংকটজনক হয়ে দাঁড়াচ্ছে।

04/09: ওই সকল মাহুত এবং পাতাওয়ালাদের মাসিক ৭,২৪০ টাকা বেতন দেওয়া হতো। এই বাজার দরের তুলনায় অনেকটাই কম যা সংসার চালানোর পক্ষে অসাধ্য তো বটেই।

05/09: শুধু তাই নয় মাহুতদের মৃত্যু হলে তাদের কোন বিমার ব্যবস্থা করা হয়নি। তাছাড়া তাদের পরিবারের কোন কাজের সুপারিশ করে দেওয়া হয়নি। এইসবের কারণেই বনদপ্তরের কর্মীরা প্রথমে বিক্ষোভ চালায় তারপর একসঙ্গে কাজ বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত জানায়। তার ফলস্বরূপ বনদপ্তরের আধিকারিকরা খুব দুশ্চিন্তায় পড়ে।

06/09: এদিকে এত গরম পড়ার কারণে হাতিদের প্রায় দেড় থেকে ২ কুইন্টাল খাবার এবং অতিরিক্ত পরিমাণে পানীয় জলের ব্যবস্থা করতো এই মাহুতরায়, এত গরম পড়ার কারণে হাতি এবং অন্যান্য পশুদেরও পানীয় জলের চাহিদা বেড়েছে। ফলে এই কর্মীরা কাজ বন্ধ করে দেওয়ার কারণে বনের পশুরাও নাজেহাল হয়ে পড়ছে।

07/09: এমত অবস্থায় তারা কাজ বন্ধ করে দেওয়ার কারণে খুব চাপের মধ্যে পড়ে বনদপ্তর। শেষে ২৩৬ স্থায়ী পদে কর্মী নিয়োগ করা হবে বলে বনদপ্তর থেকে জানায়।

08/09: বনদপ্তর এর আধিকারিক সৌমিত্র দাশগুপ্ত জানান – ‘এতে চিন্তিত হওয়ার কোনও কারণ নেই, যে অস্থায়ী মাহুত ও পাতাওয়ালাদের আন্দোলনের জন্যই নিয়োগের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। গত ছ’মাস ধরে নিয়োগ সংক্রান্ত সরকারি প্রক্রিয়া চলছিল। শেষ পর্যন্ত অর্থ দপ্তরের অনুমোদনের পরেই দ্রুত নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হবে।’

09/09: এইরকম নিত্যনতুন খবরের আপডেট পেতে হলে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে জয়েন হয়ে যান ।

Sarkarichakri.co.in আমরা কোন নিয়োগ সংস্থা নয় সরকারি এবং বেসরকারি চাকরির ওয়েবসাইট গুলিতে যে সমস্ত চাকরির খবরের আপডেট দেয় সেগুলো আপনাদের সামনে তুলে ধরাই আমাদের দায়িত্ব তাই আমাদের বিজ্ঞপ্তি পড়ার পর চাকরিতে এপ্লাই করার আগে অবশ্যই সরকারি চাকরির ওয়েবসাইটে গিয়ে বিজ্ঞপ্তিটি কে যাচাই করে নেবেন যদি কোনো অসুবিধা হয় অবশ্যই আমাদের সঙ্গে কন্টাক করতে পারেন অথবা কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করুন

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button