সরকারি পরিকল্পনা

রেশন কার্ড সংশোধন করুন বাড়িতে বসেই

রেশন কার্ড সংশোধন করুন বাড়িতে বসেই: বর্তমানে ভারত অর্থনীতির এক চরম শিখরে উঠেছে বটে কিন্তু তার মধ্যেও ভারতের প্রায় 90 কোটি মানুষ রেশন ব্যবস্থার মাধ্যমে প্রতিমাসে খাদ্য সংগ্রহ করে থাকে, সেজন্য বলাই বাহুল্য এদেশে রেশন ব্যবস্থার গুরুত্ব অপরিসীম। এই যে এত বেশি পরিমাণ রেশন গ্রাহক রয়েছে ভারতবর্ষে, তাদের মধ্যে 10 কোটি রয়েছে শুধুমাত্র আমাদের এই রাজ্য পশ্চিমবঙ্গে। কিন্তু রেশন ব্যবস্থা তেও এখন মাঝে মাঝে নানা রকম বিপত্তি বা গন্ডগোল দেখা দিচ্ছে যার ফলে সাধারণ জনগণ প্রাপ্য ন্যায্যমূল্য রেশন থেকে মাঝেমধ্যেই বঞ্চিত হওয়ার খবর শোনা যায়।

Join Our WhatsApp Channel
Join Our Telegram Channel

রেশন কার্ড সংশোধন করুন বাড়িতে বসেই

রেশন কার্ড সংশোধন করুন বাড়িতে বসেই

এছাড়াও দেখা যাচ্ছে রেশন কার্ডে মাঝেমধ্যেই নানা রকম নামের বানান ভুল হচ্ছে, যেমন ধরুন কোন ব্যক্তির নাম রাহুল ঘোষ কিন্তু রেশন কার্ড হয়ে গেছে রাহুল মোস ইত্যাদি ঘটনা। এই নানা রকম ভুল কাজের জন্য সাধারণ মানুষ বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে এবং কিছু কিছু ক্ষেত্রে ডিলাররা রেশন কার্ডের নামের বানান ও ভোটার কিংবা আধারকার্ডের নামের বানান না মেলায় রেশন দিতে চাইছে না। এখন তো রেশন কার্ডের সঙ্গে আধার কার্ড লিঙ্ক না করলে রেশন এর সামগ্রী পাওয়া যায় না, এছাড়াও এই সমস্ত ভুলের কারণে সাধারণ জনগন বিভিন্ন রকম সরকারি ও বেসরকারি সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

এই সমস্ত সমস্যার সমাধানের জন্য কিছুদিন আগে পর্যন্ত সাধারণ মানুষকে ব্লকে গিয়ে ঘন্টার পর ঘন্টা লাইন দিয়ে দাঁড়িয়ে থেকে কাজ করতে হতো অথবা জেলা খাদ্য সরবরাহ দপ্তরে অফিসে গিয়েও লাইন দিয়ে এই কার্ড সংশোধন করতে হতো।

কিন্তু রাজ্যবাসীর এত দুর্ভোগের কথা ভেবে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার এক অতুলনীয় দুর্দান্ত খবর নিয়ে এসেছে। যার মাধ্যমে এবার থেকে বাড়িতে বসে শুধুমাত্র নিজের মোবাইল ফোনটার মাধ্যমে রেশন কার্ডে যাবতীয় তথ্যাদি যেমন ধরুন নামের বানান, ঠিকানা ইত্যাদি সংশোধন করতে পারবে। এইজন্য প্রথমেই Google Play Store থেকে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের তৈরি Khadya Sathi Amar Ration অ্যাপটি ডাউনলোড করে নিতে হবে।

এবার দেখে নিন কিভাবে আপনি কাজটি করবেন এই অ্যাপের মাধ্যমে –

  • অ্যাপটি ডাউনলোড হয়ে গেলে প্রথমে অ্যাপের ভেতরে ঢুকে Ration Beneficiary অপশনে যেতে হবে।
  • তারপর রেশন কার্ডের সঙ্গে যে মোবাইল নাম্বারটি রয়েছে সেটিকে নির্দিষ্ট জায়গায় বসিয়ে OTP অপশন এ ক্লিক করে OTP যথাস্থানে বসাতে হবে দিয়ে Submit বটনে ক্লিক করতে হবে।
  • দিয়ে আবেদন পত্রটি খুলে যাবে, সেটাকে ভালো ভাবে পূরণ করে যাবতীয় ডকুমেন্টস আপলোড করলেই আপনার আবেদনটি সম্পূর্ণ হবে।
    এই খাদ্য সাথী মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে রেশন কার্ডের নামের বানান ইত্যাদি সংশোধন করা ছাড়াও রেশন কার্ড নতুনভাবে তৈরি করা, ঠিকানা পরিবর্তন, কার্ডের ক্যাটাগরী পরিবর্তন ইত্যাদি নানারকম কাজও করা যায়। এই সমস্ত অ্যাপের মাধ্যমে সাধারণ জনগণের বেশ অনেকটাই সুবিধা হবে বলে জানা যাচ্ছে। এই অ্যাপের মাধ্যমে সাধারণ কৃষকরা তাদের নিকটবর্তী ধান বা গম বিক্রয় কেন্দ্র ইত্যাদি তালিকা ও দেখতে পারবে। এর ফলে চাষীদেরকেউ আর কম মূল্যে ধান বিক্রি করতে হবে না তারা ন্যায্য মূল্যে তাদের ফসল বিক্রি করতে পারবে।

আরও পড়ুন : WBPSC Food SI Admit Card পাওয়ার সম্ভাব্য তারিখ কবে

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button