গুরুত্বপূর্ণ খবর

১০ই ডিসেম্বর বাতিল হলো প্রাইমারি টেট পরীক্ষা, তাহলে কবে হবে পরীক্ষা ! বিস্তারিত জানুন

১০ই ডিসেম্বর বাতিল হলো প্রাইমারি টেট পরীক্ষা: প্রাইমারি টেট পরীক্ষার দিন পরিবর্তন করে দিলো পশ্চিমবঙ্গ প্রাইমারি বোর্ড। পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল 10 ডিসেম্বর, কিন্তু সেটা পরিবর্তন করা হলো এবং কবে সেটা হবে সেটাও জানিয়ে দিল সোমবার পর্ষদ।

Join Our WhatsApp Group
Join Our Telegram channel
Visit Exam Preparation
Join Our Facebook Group

১০ই ডিসেম্বর বাতিল হলো প্রাইমারি টেট পরীক্ষা

১০ই ডিসেম্বর বাতিল হলো প্রাইমারি টেট পরীক্ষা, তাহলে কবে হবে
১০ই ডিসেম্বর বাতিল হলো প্রাইমারি টেট পরীক্ষা

আগের ঘোষণা করা দিন অনুসারে পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল 10 ডিসেম্বর দুপুর 12 থেকে দুপুর 2:30 পর্যন্ত। কিন্তু পর্ষদ জানালো সেই পরীক্ষা হবে আগামী 24 ডিসেম্বর,কিন্তু পরীক্ষার সময়ের কোনো রকম বদল হবে না বলে জানানো হয়েছে পর্ষদ সূত্রে।

কিন্তু এই এতো বড় সিদ্ধান্ত কিসের কারণে নিলো সেটা কিন্তু জানায়নি পর্ষদ,শুধুমাত্র এইটুকুই বলেছে অনিবার্য কারণ বশত এই সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে পর্ষদকে। সুপ্রিম কোর্টের নতুন নির্দেশ অনুসারে বিএড যারা করেছেন তারা কিন্তু টেট পরীক্ষায় বসতে পারবেন না, কিন্তু এটাও বলেছেন যে, ডিএলএড সহ প্রাথমিক শিক্ষকের অন্য ট্রেনিং যারা নিয়েছে এবং গত বছরের অকৃতকার্য যেসব চাকরিপ্রার্থী রয়েছেন তারাও এই পরীক্ষায় বসতে পারবেন।

পরীক্ষার নিরাপত্তার বিষয়ে অন্যান্য বছরের মতো এবছরও কোনরকম ত্রুটি রাখতে চাইছে না পর্ষদ। যেমন ধরুন এবারও সিসিটিভি ক্যামেরা, বায়োমেট্রিক উপস্থিতি ইত্যাদি সব রকম ব্যবস্থা করতে চলেছে পরীক্ষার্থীদের জন্য । নজরদারি জন্য কেন্দ্রীয়ভাবে কন্ট্রোল রুম খোলা হবে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের অফিসে।

প্রাথমিক শিক্ষা পরিষদ এর খবর অনুযায়ী, গত বছরে তুলনায় এ বছর পরীক্ষার্থীর সংখ্যা অর্ধেক হয়ে গেছে এবং সেই সংখ্যাটা হলো 3 লক্ষ্য 9 হাজার 54 জন। এ বিষয়ে পর্যদের তরফ থেকে ব্যাখ্যা, 2022 সালের ডিসেম্বর মাসে যে পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়েছিল সেখানে ডিএলএড ও বি এড এর সকল যোগ্য চাকরিপ্রার্থী আবেদন করতে পেরেছিলেন। তবে এবছর শীর্ষ আদালতের নির্দেশে ডি এল এড উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীরা শুধু এখানে আবেদন করতে পারবেন।

২০২২ সালে ডিএলএড ও বিএড পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন প্রায় এক লাখ পঞ্চাশ হাজার জন পরীক্ষার্থী। তার মধ্যে থেকে প্রায় ৯৭ হাজার পরীক্ষার্থী এ বছর প্রাথমিকের টেটে আবেদন করতে পারবেন না বলে পর্ষদ সূত্রের খবর। পাশাপাশি পর্ষদের তরফ থেকে জানা গিয়েছে, এ বছর শূন্য আসনের সংখ্যা অনেকটাই বৃদ্ধি পেয়েছে।

২০২২ সালের ১১ ডিসেম্বর দীর্ঘ পাঁচ বছর বাদে প্রাথমিকের টেট হয়েছিল সেখানে আবেদনকারীর সংখ্যা ছিল প্রায় ছ’লক্ষ ৯০ হাজার। আর পরীক্ষায় বসেছিলেন প্রায় ছ’লক্ষ ২০ হাজার পরীক্ষার্থী। ২০২৩ সালের ১৪ ই সেপ্টেম্বর অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন প্রক্রিয়া গ্রহণ করা শুরু হয়েছিল এবং ৪ অক্টোবর আবেদন প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে। বৃহস্পতিবার যাঁরা আবেদন করেও টাকা জমা দেননি তাঁদের জন্য একদিন বাড়তি ধার্য করেছে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ।

আরও পড়ুন: মাধ্যমিক পাশে SSC GD Constable নিয়োগ

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button