NEWS UPDATEগুরুত্বপূর্ণ খবর

Government Budget 2024 , কোন কোন পন্যের দাম কমলো বা বাড়লো দেখুন বিস্তারিত:-

Government Budget 2024 , কোন কোন পন্যের দাম কমলো বা বাড়লো:- ভারতে 1860 সালে তৎকালীন ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির আধিকারিকরা, প্রথম বাজেট পেজ করেছিল। এর পরবর্তীকালে ভারত স্বাধীন হওয়ার পর প্রথম বাজেট পেশ করা হয়েছিল 1947 সালের 26 ডিসেম্বর। তার পরবর্তীকালে নির্দিষ্ট সময় অন্তর অন্তর কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রকের তত্ত্বাবধানে এই বাজেট পেশ করা হয় গোটা দেশ জুড়ে। সামনে মাত্র কিছুদিন পর লোকসভা ভোট, তার জন্যই তিন মাসের জন্য এবার বাজেট পেশ করল ভারতীয় অর্থ মন্ত্রক।

Join Our WhatsApp Group
Join Our Telegram channel
Visit Exam Preparation
Join Our Facebook Group

Government Budget 2024

Government Budget 2024 , কোন কোন পন্যের দাম কমলো বা বাড়লো
Government Budget 2024 , কোন কোন পন্যের দাম কমলো বা বাড়লো

Government Budget 2024 , কোন কোন পন্যের দাম কমলো বা বাড়লো দেখুন বিস্তারিত

এ বারের অন্তর্বর্তীকালীন বাজেটের জন্য নর্থ ব্লকে উপস্থিত থাকছেন দীপমের সচিব তুহিন কান্ত পান্ডে, কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রকের রাষ্ট্রমন্ত্রী পঙ্কজ চৌধুরী, ভগবত কিষান রাও কারাড প্রমুখ ব্যক্তিত্ব। নর্থ ব্লকে বাজেট নিয়ে শেষ মুহূর্তের বৈঠক সম্পন্ন হওয়ার পরে রাষ্ট্রপতি শ্রীমতি দ্রৌপদী মুর্মুর কাছে যাবেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীসহ অন্যান্যরা।

তারপর পৌঁছে যাবেন সংসদে। সেখানে মন্ত্রিসভার বৈঠকে বাজেটে অনুমোদন দেওয়া হবে। এরপর সবার শেষে প্রকাশ করা হবে বাজেট। দেশের বহু সংখ্যক মানুষ অধীর আগ্রহে প্রতীক্ষা করেছেন এই বাজেটের জন্য। এবার অন্তর্বর্তীকালীন বাজেট প্রেশ করা হলেও, এবার কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামনের থেকে আয়কর দাতারা তাদের বহু সুযোগ সুবিধা প্রত্যাশা করেছেন। এর কারণ বশত মূলত সামনে আসছে 2023-2024 অর্থবর্ষে প্রত্যক্ষ কর বৃদ্ধি পাচ্ছে। আয়কর ও কর্পোরেট কর বেড়েছে 20% ।

স্ট্যান্ডার্ড ডিডাকশনের সীমানাও বৃদ্ধি করা হবে । এই কারণেই দেশের সাধারণ জনগণ আশা করেছেন আইকর আইনের 80C এর আওতায় ছাড়ে সীমা বাড়াতে পারি না অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। আয়কর আইনের 80C ধারার আওতায় আপাতত বছরে 1.5 লাখ টাকা ছাড় মেলে। সেটা বাড়ানোর জন্য দীর্ঘদিন ধরেই দাবি জানানো হচ্ছে। এই আইনের আওতায় জীবন বীমা নিগমের পলিসি(LIC), পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড (PPF), এমপ্লয়িড পেনশন স্কিম(EPS) এর মত বিভিন্ন স্কিম।

এবারের অন্তর্বর্তীকালীন বাজেটে স্ট্যান্ডার্ড ডিডাকশনের সীমা বাড়িয়ে এক লাখ টাকা করার প্রত্যাশা করা হচ্ছে। বর্তমানে গৃহঋণ এর সুদ বেড়েছে এবং বাড়ির দামও সমান হারে বেড়েছে। তাই কর বিশেষজ্ঞরা বাড়ি কেনার ক্ষেত্রে কর ছাড় দেওয়ার সুবিধা বৃদ্ধির পক্ষে প্রশ্ন করছে। আশা করা যাচ্ছে যে, এই বিষয়গুলি ও আলোচিত হতে পারে। আয়কর প্রদানের ক্ষেত্রে আয়ের সীমা বাড়িয়ে 30 লাখ টাকা করার দাবি উঠেছে দীর্ঘদিন ধরে। এ বারের অন্তর্বর্তী বাজেটে এই বিষয়গুলি আলোচিত হতে পারে বলে অনুমান করা হচ্ছে। আন্তর্জাতিক মুদ্রা ভান্ডারের Executive Director এর তথা ভারতের প্রাক্তন মুখ্য অর্থনৈতিক উপদেষ্টা K. Subramaniam এই বাজেট প্রসঙ্গে বলেছেন যে, আমাদের মাথায় রাখতে হবে যে, এটা Vote-on-Account ।

নির্বাচনের পরে অর্থাৎ জুন কিংবা জুলাই মাস নাগাদ পূর্ণাঙ্গ বাজেট পেশ করা হবে। তাই এই বাজেটে খুব বড় কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে না। এ বারের বাজেট ঘোষণা করার প্রথমেই কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী শ্রীমতি নির্মলা সীতারামন নিজের বক্তৃতা দিতে গিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের প্রসঙ্গে নানা কথা জানান। প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী পরিচালিত কেন্দ্রীয় সরকার দেশের সাধারণ মানুষদের সুবিধার্থে কি কি ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন ? প্রসঙ্গেও নিজের বক্তব্যে আলোচনা করেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। এই দিনের বাজেটে তিনি বিশেষ যে জিনিসগুলি ঘোষণা করেছেন, সেগুলি হল –

কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী জানান আশা কর্মী এবং অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীদের আয়ুষ্মান ভারতে আনা হচ্ছে।

1.পরিকাঠামো খাতি-বরাদ্ধের অংকটা বহুগুণ বাড়ানো হয়েছে বলে দাবি করেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। এ পাশাপাশি তিনি এটাও জানান যে, 2024-25 অর্থ বাড়ছে বিনিয়োগের অংকটা পরিকাঠামো খাতে 11 লাখ 11 হাজার কোটি টাকা করা হচ্ছে।

2.এক কোটি বাড়ির মাথায় সৌর প্যানেল বসানো হবে। মাসে 300 ইউনিট পর্যন্ত বিদ্যুৎ বিনামূল্যে পাওয়া যাবে। বছরে বিদ্যুতের বিলে 15000 থেকে 18000 টাকা বাঁচানো সম্ভব হবে।

3.বহু প্রত্যাশা সত্তি ও আয়কর পরিকাঠাময় কোনো রকম পরিবর্তন করলেন না কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। তিনি জানালেন আমদানি চুলকোসহ প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষ করের হার একই রাখার প্রস্তাব আমি দিচ্ছি, অর্থাৎ আগেরবারের মতোই থাকছে আয়করের হার।

4.শক্তি, খনিজ ও সিমেন্ট করিডর, বন্দর করিডর এবং বেশি ট্রাফিক থাকা করিডর তৈরি করা হবে আমাদের ভারতবর্ষে। বেশি ট্রাফিক থাকা করিডরের ফলে ট্রেনের গতি বাড়বে ।

5. সুরক্ষা পারবে যাত্রীবাহী ট্রেনের। 40,000 সাধারণ বৌদিকে বন্দে ভারতের পর্যায়ে উন্নতি করা হবে বলে জানানো হয়েছে, কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রকের তরফ থেকে।

এখন শুধুমাত্র সাধারণ জনগণের অপেক্ষার পালা যে, কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রকের এই চিন্তাভাবনা কতটা সাফল্যমন্ডিত হচ্ছে সেইটা দেখার।

আরও পড়ুন:- Food SI পরীক্ষার অ্যাডমিট কার্ড কবে পাবে পরীক্ষার্থীরা , জানুন বিস্তারিত

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button